Home Blog

চন্দ্রযান-৩ এর এলিয়েন খুঁজে পাওয়ার খবর কি সত্যি?

0
চন্দ্রযান-৩

ISRO-এর তৃতীয় চন্দ্র মিশন “চন্দ্রযান-3” এর ল্যান্ডার মডিউলের সফল অবতরণের মাধ্যমে, ভারত চাঁদে পৌঁছেছে ! এটি চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণকারী প্রথম দেশও হয়ে উঠেছে। এই নিয়ে এখন গোটা  বিশ্বের চোখ শুধু ভারতের মিশন চন্দ্রযান-3 উপরে।

এর মধ্যেই অনেক আজগুবি খবর হয়তো আপনাদের চোখেও পড়ে থাকবে যেমন “চন্দ্রযান-3 এলিয়েন খুঁজে পেয়েছে” বা  “চন্দ্রযান-3 এর রত্নভাণ্ডারের খোঁজ” ইত্যাদি এইরকম অনেক কিছু। সত্যি বলতে কি চন্দ্রযান-3 কিন্তু এইসবের জন্য চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে যায়নি।

চন্দ্রযান 3 সম্পর্কে প্রধান কিছু অনুসন্ধান:-

১. এই মিশনটি ISRO-এর নেতৃত্বে ভারত কর্তৃক গৃহীত একটি প্রযুক্তিগত চ্যালেঞ্জ। যেটি আমরা অনেক আগেও নিয়েছিলাম কিন্তু সফল হতে না পারায় সারা বিশ্বজুড়ে ছি ছি রব পড়ে গিয়েছিলো। এখন আমরা  চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণকারী প্রথম দেশও হয়ে উঠেছে এটা একজন ভারতীয় হিসেবে গর্বের।

২. এই মিশনটি ISRO-এর নেতৃত্বে মূলত দুইটি অনুসন্ধানের ভাগ একটি হলো তাপমাত্রা এবং অন্যটি হলো অক্সিজেন সহ বিভিন্ন উপাদানের উপস্থিতি।

৩. ISRO এখনো পর্যন্ত দক্ষিণ মেরুর চন্দ্রপৃষ্টে  অক্সিজেন, অ্যালুমিনিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ম্যাঙ্গানিজ, টাইটানিয়াম, ক্রোমিয়াম, সালফার এবং সিলিকনের উপস্থিতি নিশ্চিত করেছে।

LIBS instrument is developed at the Laboratory for Electro-Optics Systems (LEOS)/ISRO

৪. চন্দ্রের তাপমাত্রা চন্দ্রযান 3 চাঁদের মাটির তাপমাত্রা পরিমাপ করেছে এবং কিছু বিস্ময়কর ফলাফল পেয়েছে যা এর আগে কেউ ভাবতেও পারেনি। তাপমাত্রা মাইনাস 10 ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে প্রায় 70 ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত।

৫. এছাড়াও সবথেকে বড়ো খবর, প্রজ্ঞান রোভার চন্দ্র পৃষ্ঠের উপর পরীক্ষা নিরীক্ষা করে হাইড্রোজেন এর খোঁজ পেয়েছে যেটি এখনো পর্যন্ত এক যুগান্তকারী খোঁজ ISRO এর কথা মতো।

চন্দ্রযান 3, 23 আগস্ট চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সফ্ট ল্যান্ডিং করেছিল। তারপর থেকেই , প্রজ্ঞান রোভার বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা নিরীক্ষা চালাচ্ছে ।  ইসরো প্রধান এস সোমনাথ এর ব্যাখ্যা অনুযায়ী কোনো দেশ চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সফট-ল্যান্ড করেনি। দক্ষিণ মেরু, সূর্য দ্বারা কম আলোকিত এবং মানুষের থাকার উপযুক্ত  হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে বলেই এই সিদ্ধান্ত ।

প্রজ্ঞান রোভার আজ সকালে বিক্রম ল্যান্ডারের একটি ছবি ক্লিক করেছে।

‘মিশনের চিত্র’ রোভার (NavCam) জাহাজে নেভিগেশন ক্যামেরা দ্বারা নেওয়া হয়েছিল।

চন্দ্রযান-৩ মিশনের জন্য নেভিক্যামগুলি ল্যাবরেটরি ফর ইলেক্ট্রো-অপটিক্স সিস্টেম (LEOS) দ্বারা তৈরি করা হয়েছে

গ্যাসের দাম ২০০ থেকে ৪০০ টাকা কম হলো !

0
The price of gas is 200 to 400 less!

২০০-৪০০ গ্যাসের দাম অনেকটাই কমেছে, কোথায় কত গ্যাসের দাম আসুন জেনেনেওয়া যাক

রাখি উৎসবের এই পুন্য দিনে এর থেকে ভালো খবর আর কী হতে পারে, হটাৎ করে এতটাই যে কমহবে গ্যাসের দাম কে জানতো। মঙ্গলবার রাত থেকেই এই দাম কার্যকর হয়ে গেছে বলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কার্যত মোদী কেবিনেট ডিসিশনের মন্ত্রী সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আজ রাখি উৎসবের এই দিনে দেশের মা বোনেদের এর থেকে ভালো খবর আর কি হতে পারে। ঘোষণা অনুসারে ২০০ টাকা কমেছে সাধারণ ভাবে ব্যাবহত গ্যাসের দাম এবং ৪০০ টাকা কমেছে উজ্জলা প্রকল্পের মধ্যে রয়েছেন।

এই মুহুর্তে পশ্চিমবঙ্গের কিছু জায়গার সাধারণ প্রকল্পের ১৪ কেজি গ্যাসের দাম নিচে দেওয়া হলো:

গতকাল (মঙ্গলবার) থেকেই এই দাম ধার্য করা হয়েছে:

City

14.2 kg LPG Price in August 2023 14.2 kg LPG Price in August 2023 (Rs = -200/-)
Kolkata 1,129.00 929.00
Jhargram 1121.50 921.50
Paschim Bardhaman 1142.50 942.50
Purba Bardhaman 1142.50 942.50
Kalimpong 1258.50 1,058.50
Alipurduar 1156.60 956.60
Paschim Medinipur 1122.00 922.00
Uttar Dinajpur 1201.50 1,001.50
South 24 Parganas 1137.50 937.50
Purulia 1158.00 958.00
North 24 Parganas 1129.00 929.00
Nadia 1129.50 929.50
Murshidabad 1147.00 947.00
Purba Medinipur 1105.00 905.00
Malda 1200.00 1,000.00
Jalpaiguri 1156.50 956.50
Howrah 1130.50 930.50
Hooghly 1132.00 932.00
Darjeeling 1156.00 956.00
Dakshin Dinajpur 1201.50 1,001.50
Cooch Bihar 1156.50 956.50
Birbhum 1160.50 960.50
Bankura 1141.50 941.50

 

অন্যদিকে উজ্জলা গ্যাস যোজনার (Ujjwala Gas Yojana 2023) মাধ্যমে এই পরিষেবা ফ্রি তে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী। প্রায়  এই সুবিধা আমাদের ৭৫ লক্ষ মা বোনেরা  পাবেন বলেও এদিন জানিয়েছেন তিনি। এজন্যে একটাকাও দিতে হবে না। পাইপ, ওভেন এবং সিলিন্ডার একেবারে বিনামূল্যে পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী। তাঁর দাবি, সারা বিশ্বে গ্যাসের দাম বাড়লেও ভারতে এর প্রভাব অনেক কম।

[Note:-ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন লিমিটেড ভারত জুড়ে ইন্ডেন এলপিজি রিফিল বুকিংয়ের জন্য একটি অভিন্ন বা সাধারণ নম্বর শুরু করেছে। একটি টুইটে, ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন জানিয়েছে যে গ্রাহকদের সুবিধার্থে ইন্ডেন আইভিআরএস নম্বরটিকে একটি অভিন্ন নম্বরে পরিবর্তন করা হয়েছে। Indane রিফিল বুকিংয়ের জন্য নতুন IVRS নম্বর হল 7718955555৷]

সোনার ছেলের গলায় সোনার পদক : নীরজের বর্শা এবার ইতিহাস গড়লো, আমাদের সোনার ছেলের বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে প্রথম স্বর্ণপদক।

0
#NeerajChopra #JavelinThrow #javelin #arshadnadeem #india

সোনার ছেলের গলায় সোনার পদক। গোটা ভারত অপেক্ষা করেছিল আরও একটি সোনা জয়ের। সেটাই করে দেখালেন নীরজ চোপড়া। বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথম ভারতীয় হিসাবে সোনা জিতলেন তিনি। ফাইনালে ৮৮.১৭ মিটার দূরে জ্যাভলিন ছুড়লেন নীরজ।
সাধারণত নীরজ নিজের প্রথম থ্রোতেই সব থেকে দূরে জ্যাভলিন ছোড়েন।

“সোনার ছেলে” নীরজ চোপড়া তার প্রথম থ্রো দিয়ে বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে পুরুষদের জ্যাভলিনের ফাইনালের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেনিয়েছেন। নীরজ চোপড়া শুক্রবার হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে কোয়ালিফাইং রাউন্ডের গ্রুপ A-তে শীর্ষে থাকার পর বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপ 2023-এ পুরুষদের জ্যাভলিন থ্রো ফাইনালে পৌঁছেছে। সেই থ্রোয়ের কারণে প্যারিস অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জনও করে ফেলেছেন তিনি। কিন্তু ফাইনালে প্রথম থ্রোটি ফাউল করে ফেলেন নীরজ। দ্বিতীয় থ্রোতে আর ভুল করেননি। ৮৮.১৭ মিটার দূরে জ্যাভলিন ছুড়েই চিত্‍কার করে ওঠেন নীরজ। নিজেই বুঝতে পারছিলেন যে, থ্রো ভাল হয়েছে। প্রথম তিনটি থ্রোয়ের পরে এক নম্বরেই ছিলেন তিনি। নীরজের তৃতীয় থ্রোয়ের দূরত্ব ছিল ৮৬.৩২ মিটার।

জ্যাভলিনের ফাইনালে তিন জন ভারতীয় জায়গা করে নিয়েছিলেন। নীরজ ছাড়াও ছিলেন কিশোর জেনা এবং ডিপি মানু। ফাইনালে তাঁরা শেষ করলেন পঞ্চম এবং ষষ্ঠ স্থানে। ফাইনালে প্রথম তিনটি থ্রোয়ের পর সেরা আট জনকে বেছে নেওয়া হয়। তাঁরা আরও তিনটি করে থ্রো করার সুযোগ পান। মোট ছ’টি থ্রোয়ের পরেও নীরজকে টপকাতে পারলেন না কেউ।

২০২১ সালের ৭ অগস্ট দিনটি ভারতীয় ক্রীড়াপ্রেমীরা ভুলতে পারবেন না শুধু মাত্র নীরজের জন্য। অলিম্পিক্সে অ্যাথলেটিক্সে সোনা এনে দিয়েছিলেন তিনি। হয়ে উঠেছিলেন ভারতের সোনার ছেলে। এক সময় শুধু মাত্র ওজন কমানোর লক্ষ্য নিয়ে যে নীরজকে খেলার মাঠে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তিনিই এখন গোটা ভারতের চোখের মণি।

ছোট থেকে নীরজের এক এবং একমাত্র দুর্বলতা ছিল খাবার। যে কোনও খাবার দেখলেই হামলে পড়তেন তিনি। পছন্দ ছিল তাজা ক্রিম এবং চুরমা (রুটি, ঘি এবং চিনি দিয়ে বানানো এক ধরনের পঞ্জাবি পদ)। খাবারের প্রতি নীরজের এই টানে ইন্ধন দিতেন তাঁর ঠাকুমা। সুযোগ পেলেই নাতিকে চুরমা বানিয়ে খাওয়াতেন। ঠাকুমার প্রশ্রয় পেয়ে অতি অল্প বয়সেই নাদুস-নুদুস গোলগাল চেহারার হয়ে পড়েছিলেন নীরজ। ১২ বছরে তাঁর ওজন দাঁড়ায় ৯০ কেজির বেশি। ক্রমশ এগিয়ে যাচ্ছিলেন ওবেসিটির দিকে।

বাধ্য হয়ে তাঁর ওজন কমানোর লক্ষ্যে বাবা-মা জোর করে মাঠে পাঠাতে থাকেন। হরিয়ানার পানিপথ জেলার খান্দরা গ্রামে জন্ম নীরজের। বাড়ির পাশেই শিবাজি স্টেডিয়ামে রোজ সকালে জগিং করতে যেতেন তিনি। সেখানেই পরিচয় হয় প্রাক্তন জ্যাভলিন থ্রোয়ার জয় চৌধুরির সঙ্গে। জয়ের সঙ্গে দেখা হওয়ার আগে পর্যন্ত নীরজ জানতেনই না জ্যাভলিন কী জিনিস। একদিন খেলাচ্ছলেই তাঁকে জ্যাভলিন ছুড়তে বলেছিলেন জয়। প্রথম প্রচেষ্টাতেই প্রায় ৪০ মিটার দূরে ছুড়েছিলেন নীরজ। প্রথম বার দেখেই জয় বুঝেছিলেন নীরজের ওজন বেশি থাকলেও শরীরের নমনীয়তা রয়েছে।

এরপর থেকেই ধীরে ধীরে জ্যাভলিন নীরজের জীবনের একটা অঙ্গ হয়ে ওঠে। তাঁর ওজনও ক্রমশ কমতে থাকে। চণ্ডীগড়ের ডিএভি কলেজে পড়াকালীন নিজের খেলাধুলোকে শীর্ষস্তরে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন নীরজ। অংশগ্রহণ করতে শুরু করেন বিভিন্ন জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়। ততদিনে নীরজ হয়ে উঠেছেন সুঠামদেহী। পেটানো চেহারা দেখলে মেলানো যাবে না ছোটবেলার সঙ্গে।

২০১৪-য় দক্ষিণ এশীয় গেমসে ৮২.২৩ মিটার ছুড়ে জাতীয় রেকর্ড স্পর্শ করেন। তখন সেই রেকর্ডকে কেউ পাত্তা দেননি। তবে নীরজ নজর কেড়ে নেন সে বছরই পোলান্ডের বিডগজে অনুষ্ঠিত হওয়া আইএএএফ বিশ্ব অনূর্ধ্ব-২০ প্রতিযোগিতায়। ৮৬.৪৮ মিটার ছুড়ে জিতে নেন সোনা। তৈরি করেন বিশ্ব জুনিয়র রেকর্ড। এর আগে এই প্রতিযোগিতায় কোনও ভারতীয় পদক জেতেননি।

পরের বছর এশীয় অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে ৮৫.২৩ মিটার ছুড়ে সোনা জেতেন নীরজ। ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসে ৮৬.৪৭ মিটার ছুড়ে সোনা জেতেন। কমনওয়েলথ গেমসের অভিষেকেই পদক পেয়েছিলেন তিনি। সে বছরই দোহা ডায়মন্ড লিগে ৮৭.৪৩ মিটার ছুড়ে নিজেরই জাতীয় রেকর্ড ভেঙে দেন। ৮৮.০৬ মিটার ছুড়ে এশিয়ান গেমসেও সোনা জিতেছিলেন তিনি।

এর পর করোনা অতিমারি প্রকোপে বন্ধ ছিল খেলা। অলিম্পিক্সে নেমেই সোনার পদক জিতেছিলেন নীরজ। তার পর থেকে আর ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর প্রতিযোগিতায় নেমেছেন এবং আগের থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী দেখিয়েছে তাঁকে। বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে প্রথম সোনাও এল নীরজের হাত ধরেই। গত বছর এই প্রতিযোগিতায় রুপো জিতেছিলেন তিনি।

ICSI CS ফলাফল 2023 লাইভ: CS Executive ফলাফল icsi.edu এ ঘোষণা করা হয়েছে

0
ICSI CS
https://icsi.examresults.net/

ICSI CS Executive and Professional Result 2023 লাইভ আপডেট: ফলাফল, টপার এবং পাসের শতাংশ.

ICSI Examination Result June 2023 – AVAILABLE NOW

ICSI CS Executive and Professional Result 2023 লাইভ আপডেট: The Institute of Company Secretaries of India ICSI CS ফলাফল 2023 25 আগস্ট, 2023-এ ঘোষণা করেছে। এক্সিকিউটিভ এবং প্রফেশনাল ফলাফল বের হয়েছে এবং প্রার্থীরা ICSI-এর অফিসিয়াল সাইটের মাধ্যমে ফলাফল দেখতে পারবেন ICSI.edu

প্রফেশনাল কোর্সের ফলাফল চেক করার সরাসরি লিঙ্ক নিচে দেওয়া হল।

ICSI CS ফলাফল 2023 লাইভ: CS Executive ফলাফল icsi.edu-এ, সরাসরি লিঙ্ক এখানে

সিএস এক্সিকিউটিভ ফলাফল: 10 টপারের তালিকা

র‍্যাঙ্ক 1: ভূমিকা সিং

র‍্যাঙ্ক 2: সালোনি ভাবিন খান্ত

র‍্যাঙ্ক 3: রোহান দিনেশ পাঞ্জওয়ানি

র‍্যাঙ্ক 4: আনুশ পদ্মকর শেঠি

র‍্যাঙ্ক 5: মায়াঙ্ক লোধা

র‍্যাঙ্ক 6: সাহিল প্যাটেল

র‍্যাঙ্ক 7: কে বালাসুব্রমানিয়ান

র‍্যাঙ্ক 8: অসমি কৈলাশ অগ্রবাল

র‍্যাঙ্ক 9: কুনাল

র‍্যাঙ্ক 10: আশলেশা শৈলেশকুমার প্রজাপতি

 

Bray Wyatt এর মৃত্যু সংবাদে শোকস্তব্ধ WWE এর রেসলিং জগৎ

0
WWE star Bray Wyatt Death

প্রাক্তন WWE চ্যাম্পিয়ন Bray Wyatt 36 বছর বয়সে মারা গেলেন।

WWE তারকা Bray Wyatt, পেশাদার কুস্তির সবচেয়ে সৃজনশীল মন হিসেবে পরিচিত যিনি উদ্ভাবনী চরিত্রের সাথে সীমানা ঠেলে দিয়েছেন, বৃহস্পতিবার 36 বছর বয়সে মারা গেছেন, WWE চিফ কনটেন্ট অফিসার পল “ট্রিপল এইচ” লেভেস্ক সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা করেছেন।

Wyatt, যার আসল নাম ছিল Windham Rotunda, WWE তে গত কয়েক মাস ধরে একটি অপ্রকাশিত স্বাস্থ্য সমস্যা মোকাবেলা করার সময় নিষ্ক্রিয় ছিলেন। তিনি 2009 সাল থেকে WWE এর সাথে ছিলেন, 2021 এবং 2022 সালে যখন তিনি আশ্চর্যজনকভাবে মুক্তি পান তখন মাত্র এক বছরেরও বেশি সময় ছাড়া। রোটুন্ডা গত সেপ্টেম্বরে WWE তে অনেক ধুমধাম এবং রহস্যময় গল্পের সাথে ফিরে আসেন, যার মধ্যে ক্রিপ্টিক ভিগনেট রয়েছে, যা টেলিভিশন রেটিং বাড়াতে সাহায্য করেছিল।

“এইমাত্র WWE হল অফ ফেমার মাইক রোটুন্ডার কাছ থেকে একটি কল এসেছে যিনি আমাদেরকে দুঃখজনক খবরটি জানিয়েছিলেন যে আমাদের WWE পরিবারের আজীবন সদস্য উইন্ডহাম রোটুন্ডা — যা ব্রে ওয়াট নামেও পরিচিত — অপ্রত্যাশিতভাবে আজ আগেই চলে গেছে,” লেভেস্ক X-এ লিখেছেন, পূর্বে পরিচিত টুইটার হিসাবে। “আমাদের চিন্তাভাবনা তার পরিবারের সাথে রয়েছে এবং আমরা এই সময়ে প্রত্যেকে তাদের গোপনীয়তাকে সম্মান করার অনুরোধ করছি।”

রোটুন্ডা একটি কুস্তি পরিবার থেকে এসেছেন। তার বাবা মাইক WWE তে আরউইন আর. স্কিস্টার হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন, সেইসাথে তার আসল নাম বা মাইকেল ওয়ালস্ট্রিটের অধীনে অন্যান্য প্রচারে। রোটুন্ডার চাচা ব্যারি উইন্ডহ্যাম ছিলেন 1980 এবং 1990 এর দশকের প্রথম দিকের সবচেয়ে সম্মানিত কুস্তিগীর এবং মর্যাদাপূর্ণ ফোর হর্সম্যান স্টেবলের প্রাক্তন সদস্য। রোটুন্ডার ভাই, টেলর, WWE এর জন্যও কুস্তি করেন এবং অতীতে বো ডালাস মনিকার ব্যবহার করেছিলেন।

উইন্ডহাম রোটুন্ডা সাবেক WWE রিং ঘোষক জোজো অফারম্যানকে বিয়ে করেছিলেন। তাদের দুটি সন্তান ছিল এবং রোটুন্ডার পূর্ববর্তী বিবাহ থেকে আরও দুটি সন্তান ছিল। তিনি ছিলেন দুইবারের সাবেক WWE ইউনিভার্সাল চ্যাম্পিয়ন এবং সাবেক WWE চ্যাম্পিয়ন।

ডাব্লুডাব্লিউই-এর উন্নয়নমূলক প্রোগ্রামে হাস্কি হ্যারিস চরিত্রে শুরু করার পর, রোটুন্ডা নিজেকে ব্রে ওয়াইটের সাথে খুঁজে পান, একজন উন্মাদ জলাভূমির কাল্ট নেতা যিনি একটি শয়তানী কবজ দিয়ে অনুসারীদের নিয়োগ করেছিলেন। তিনি এবং তার Wyatt পরিবার (এরিক রোয়ান এবং প্রয়াত লুক হার্পার, যার আসল নাম ছিল জোনাথন হুবার) WWE এর ডেভেলপমেন্টাল ব্র্যান্ড NXT-এ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন এবং 2014 সালে অনেক ধুমধাম করে WWE প্রধান তালিকায় আসেন।

রোটান্ডা সেই সময়ে রোস্টারের অন্যতম প্রতিভাধর পারফর্মার হিসাবে পরিচিত ছিল, বিশেষত যখন মাইক্রোফোনে একটি গল্প বলার ক্ষেত্রে আসে। তিনি ক্যাচফ্রেজ “ফলো দ্য বাজার্ডস” এবং গানের লিরিক্স ব্যবহার করতে শুরু করেছিলেন “সে পুরো বিশ্ব তার হাতে আছে।” তার প্রবেশের সময়, লণ্ঠন হাতে আবির্ভূত হওয়ার আগে আখড়া অন্ধকারে ঢেকে যায়, তার ভয়ঙ্কর সঙ্গীত বাজানোর সাথে সাথে ভক্তরা তাদের সেলফোনের আলো ধরে রাখত।

2019 সালে, রোটুন্ডা নিজেকে অতিপ্রাকৃত চরিত্র দ্য ফিয়েন্ড হিসাবে নতুন করে উদ্ভাবন করেছিলেন, একটি হরর মুভির মুখোশ পরেছিলেন যা একটি ক্লাউনের একটি ভয়ঙ্কর প্রতিকৃতি ছিল। Bray Wyatt এখনও ফায়ারফ্লাই ফানহাউস নামক বাচ্চা-বান্ধব স্কিটে বিদ্যমান ছিল, কিন্তু দ্য ফিয়েন্ড, একটি অন্ধকার পরিবর্তন অহং, তার জায়গায় কুস্তি করেছিল। এগুলি ছিল জটিল, সৃজনশীল ধারণা যা বেশিরভাগ অংশে রোটুন্ডা নিজেই নিয়ে এসেছিল। দ্য ফিয়েন্ড একটি চরিত্র হিসাবে মেরুকরণ করছিল রিং-এ তার কাছাকাছি অভেদ্যতার কারণে, কিন্তু এটি ছিল একটি উদ্ভাবনী লাফ এবং সেই সময়ে ডাব্লুডাব্লুই টেলিভিশনে সবচেয়ে আকর্ষণীয় জিনিসগুলির মধ্যে একটি।

রোটুন্ডা 2021 সালে প্রাক্তন ব্রে ওয়ায়াট হিসাবে মুক্তি পাওয়ার পর গত বছর WWE-তে ফিরে আসেন, একজন ভাল-গায়ের চরিত্র যিনি দৃশ্যত দ্য ফিয়েন্ড এবং আঙ্কেল হাউডির মতো অতীতের রাক্ষসদের দ্বারা ভূতুড়ে ছিলেন। ফেব্রুয়ারীতে যখন রোটুন্ডা স্বাস্থ্যগত সমস্যার কারণে টেলিভিশন থেকে অদৃশ্য হয়ে যায় তখনও গল্পটি তৈরি হচ্ছিল।

ডোয়াইন “দ্য রক” জনসন বৃহস্পতিবার X-এ লিখেছেন, “তার এবং রোটুন্ডা পরিবারের প্রতি সর্বদাই অসাধারণ শ্রদ্ধা এবং ভালবাসা ছিল।” “তার উপস্থিতি, প্রচার, রিং ওয়ার্ক এবং ডাব্লুডাব্লুই মহাবিশ্বের সাথে সংযোগ পছন্দ করেছে। খুব অনন্য, দুর্দান্ত এবং বিরল চরিত্র। , যা আমাদের প্রো রেসলিং এর পাগল জগতে তৈরি করা কঠিন।”

নীরজ চোপড়া প্রথম প্রচেষ্টায় বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে জ্যাভলিন ফাইনালে যোগ্যতা অর্জন করেছেন

0
Neeraj Chopra qualified for the javelin final

নীরজ চোপড়া প্রথম প্রচেষ্টায় বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে জ্যাভলিন ফাইনালে যোগ্যতা অর্জন করেছেন

নীরজ চোপড়া তার প্রথম থ্রো দিয়ে বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে পুরুষদের জ্যাভলিনের ফাইনালের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেনিয়েছেন। নীরজ চোপড়া শুক্রবার হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে কোয়ালিফাইং রাউন্ডের গ্রুপ A-তে শীর্ষে থাকার পর বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপ 2023-এ পুরুষদের জ্যাভলিন থ্রো ফাইনালে পৌঁছেছে।

নীরজ চোপড়া নির্ধারিত ফাইনালে সরাসরি প্রবেশের জন্য তার প্রথম প্রচেষ্টায় 88.77 মিটারের একটি সেরা থ্রো তৈরি করেছিলেন যেটা এই টুর্নামেন্টের সেরা থ্রো এখনো পর্যন্ত।

2022 সালের বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে রৌপ্য জিতেছেন নীরজ, 83 মিটারের নিজের যোগ্যতা চিহ্নের বাইরেও ভাল ছুড়ে দিয়েছেন।

88.77 মিটার দূরত্বেও জ্যাভলিন থ্রোতে নীরজ চোপড়া প্যারিস 2024 অলিম্পিকে প্রবেশের অধিকার এখন থেকেই পোক্ত করেনিলেন। ট্র্যাক এবং ফিল্ড অ্যাথলেটদের জন্য প্যারিস 2024 অলিম্পিকের জন্য যোগ্যতার উইন্ডোটি 1 জুলাই, 2023 থেকে শুরু হয়েছিল। আসন্ন গ্রীষ্মকালীন গেমসের জন্য পুরুষদের জ্যাভলিন থ্রো ইভেন্টের প্রবেশের মান হল 85.50 মি ছিল, কিন্তু নীরোজের এই অবিশ্বাস থ্রো প্যারিস 2024 অলিম্পিকে প্রবেশের সিলমোহর দিয়ে দিলো।

ভারতের চন্দ্রযান-৩ চাঁদে অবতরণ সম্পর্কে আমাদের কী কী জেনেরাখা দরকার?

0
Chandrayaan-3

Chandrayaan-3

ভারতের চন্দ্রযান-৩  চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণকারী প্রথম দেশ হওয়ার জন্য রাশিয়া এবং ভারতের মধ্যে একটি মহাকাশ রেস চলছিল। কিন্তু রাশিয়ার লুনা-25 মহাকাশযান বিধ্বস্ত হওয়ার পর, চন্দ্র অবতরণের দ্বিতীয় প্রচেষ্টা সফল হয়েছে কিনা তা দেখার জন্য পুরো বিশ্বের চোখ বুধবার ভারতের দিকে ছিল।

চন্দ্রযান-৩ কি?

চন্দ্রযান-৩ মিশনের সাফল্য ভারতকে চাঁদের পৃষ্ঠে অবতরণকারী চতুর্থ দেশ বানিয়েছে।

চন্দ্রযান-৩, যার অর্থ  “চাঁদের যান বা চাঁদে পৌঁছানোর পরিবহন মাধ্যম”, গত মাসে বঙ্গোপসাগরের  শ্রী হরিকোটা সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে চাঁদের দিকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে চন্দ্রযান-৩ । যদি সবকিছু পরিকল্পনা অনুযায়ী যায়, মহাকাশযান – এই যানের মধ্যে কোনও মহাকাশচারী ছিলোনা – দুই সপ্তাহের জন্য চাঁদের পৃষ্ঠটি পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে একটি 60-পাউন্ড, সৌর-চালিত রোভার। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার মতে মিশনের উল্লিখিত উদ্দেশ্যগুলি হল চাঁদে নিরাপদে অবতরণ করা, একটি রোভার স্থাপন করা এবং বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা চালানো।

ভারত কি এর আগে চাঁদে গেছে?

2008 সালে ভারতের চন্দ্রযান -1 মিশন – যা চন্দ্র জলের অণু আবিষ্কার করে সারা বিশ্বে সাড়া ফেলেছিলো, এই মহাকাশযানের অবতরণ সত্যি খুব প্রভাব অনুসন্ধান ছিল।

দেশটি 2019 সালে চাঁদের পৃষ্ঠে একটি মহাকাশযান অবতরণ করার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু চন্দ্রযান-2 টাচডাউনের কয়েক মিনিট আগে ল্যান্ডারের সাথে যোগাযোগ হারিয়ে যাওয়ার পরে ব্যর্থ হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সেই সময় বলেছিলেন, “আমরা খুব কাছাকাছি এসেছি কিন্তু আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ আরো নিখুঁত করতে হবে।” সেই কারণেই “চাঁদ স্পর্শ করার জন্য আমাদের সংকল্প আরও শক্তিশালী হয়েছে।” চন্দ্রযান-৩ সফলভাবে চাঁদের মাটিতে অবতরণ, ১৪০ কোটি ভারতবাসীর স্বপ্ন পূরণ এবং গোটা দেশবাসীর প্রার্থনা আর ইসরোর বিজ্ঞানীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফল স্বরূপ ।

শুধুমাত্র তিনটি দেশ – এখনো পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া (সোভিয়েত ইউনিয়ন হিসাবে) এবং চীন – সফলভাবে চাঁদের পৃষ্ঠে মহাকাশযান অবতরণ করেছে।

কেন সবাই চাঁদে যাওয়ার চেষ্টা করছে বার বার?

আরেকটি মহাকাশ প্রতিযোগিতা ঘটছে, যদিও এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের মধ্যে বাক বিবাদ চলতেই থাকে – যেটি যুগের প্রতিযোগিতা থেকে একেবারেই আলাদা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ দেশগুলি – এবং ভারত, চন্দ্রযান-3 সহ – চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে উপস্থিতি স্থাপন বা তার সম্পর্কে আরও জানতে লক্ষ্য করছে, যেখানে বরফের আবৃত সুবিশাল গহ্বর,  দীর্ঘমেয়াদী বসতি স্থাপনের জন্য জল সরবরাহ করতে পারে বা জ্বালানী স্টেশন হিসাবে কাজ করতে পারে। মহাকাশ অনুসন্ধানের জন্য প্রকার। (জলের উপাদনীয় অংশ, হাইড্রোজেন এবং অক্সিজেন, রকেট জ্বালানী হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।)

Chandrayaan-3 Landing Live

0
বাচ্চারা অধীর অগ্ৰহে অপেক্ষারত চন্দ্রাযান-৩ সেই শুভসন্ধিক্ষণের

Chandrayaan-3 অবতরণ আপডেট: ইসরো মুন মিশন থেকে অত্যাশ্চর্য ছবি প্রকাশ করেছে ISRO

Chandrayaan3
Indian Aerospace Defence News – IADN

চন্দ্রপৃষ্ঠে ভারতকে গর্বিত করার জন্য রোভারটিকে ইসরোর লোগো এবং অশোকের সিংহের প্রতীক দিয়ে খোদাই করা হবে।

ISRO-এর ‘Chandrayaan-3’ (PTI) থাকা ল্যান্ডার হ্যাজার্ড ডিটেকশন অ্যান্ড অ্যাভয়েডেন্স ক্যামেরা (LHDAC) দ্বারা বন্দী করা চন্দ্রের দূরবর্তী এলাকা

আজ সন্ধ্যা ৬টা ৪ মিনিটে চাঁদে অবতরণ করবে Chandrayaan-3। এরপর থেকে সারা দেশ বিদেশে অপেক্ষা করছে। সারা বিশ্ব আজ চন্দ্রযানের সাফল্যের দিকে তাকিয়ে আছে।

চন্দ্রযান-৩ |Live watch YouTube : ISRO Official

চন্দ্রযান-৩ অবতরণের লাইভ আপডেট আর মাত্র কিছুক্ষণের অপেক্ষা

0
Chandrayaan-3 live updates

Chandrayaan-3 landing live updates

চন্দ্রযান-৩ অবতরণের সেই শুভ সন্ধিক্ষণের এক মুহুর্তের অপেক্ষা, আজ সন্ধে ৬ টা 0৪ মিনিটে চাঁদের বুকে নামার কথা চন্দ্রযান ৩-এর। সেই থেকে অপেক্ষার প্রহর গুণছে সারা দেশ ও বিদেশিও। সারা বিশ্ব আজ তাকিয়ে চন্দ্রযানের সাফল্যের দিকে। তাই যে-যার বিশ্বাস অনুসারে চালাচ্ছে পুজো অর্চনা।

Live updates of Chandrayaan-3 landing

 

মধ্যপ্রদেশ: উজ্জয়িনের শ্রী মহাকালেশ্বর মন্দিরে বিশেষ ‘ভস্ম আরতি’ পরিবেশিত হয়েছে, সফল অবতরণের জন্য.

 

উত্তরপ্রদেশ: বিজেপি নেতা মহসিন রাজা গতকাল লখনউয়ের হযরত শাহ মীনা শাহ দরগায় #চন্দ্রযান 3-এর সাফল্যের জন্য প্রার্থনা করেছিলেন

 

চন্দ্রযান-৩ সফল অবতরণের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার একটি মন্দিরে হবন করা হচ্ছে।

 

উত্তরাখণ্ড: 23শে আগস্ট চন্দ্রযান-3 মিশনের অবতরণের আগে ঋষিকেশের পারমার্থ নিকেতন ঘাটে হাতে তেরঙ্গা নিয়ে গঙ্গা আরতি পরিবেশন করা হয়েছিল।

 

আজ সন্ধ্যা ৬টা 0৪ মিনিটে চাঁদে অবতরণ করবে চন্দ্রযান ৩। এরপর থেকে সারা দেশ বিদেশে অপেক্ষা করছে। সারা বিশ্ব আজ চন্দ্রযানের সাফল্যের দিকে তাকিয়ে আছে। তাই যে যার বিশ্বাস অনুযায়ী প্রার্থনা করছে।

চন্দ্রযান-3 এর গতিবিধি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এবং টিভি চ্যানেলগুলিতে লাইভ স্ট্রিম করা হবে কারণ ভারত চন্দ্রের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণকারী প্রথম দেশ হবে।

 

চন্দ্রযান-৩ |Live watch YouTube – 

 

 

ফিফা মহিলা বিশ্বকাপ 2023: স্পেন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে 1-0 জয়ের সাথে তাদের প্রথম মহিলা বিশ্বকাপ জিতেছে।

0

FIFA Women's World Cup 2023

ফিফা মহিলা বিশ্বকাপ 2023: স্পেন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে 1-0 জয়ের সাথে তাদের প্রথম মহিলা বিশ্বকাপ জিতেছে, ওলগা কারমোনার প্রথম হাফেতেই, এই গোল ইতিহাস তৈরি করার জন্য যথেষ্ট ছিল কারণ স্পেন রবিবার (20 আগস্ট) ইংল্যান্ডকে 1-0 গোলে জয় দিয়ে তাদের প্রথম মহিলা বিশ্বকাপ জিতে নিয়েছে।

রবিবার (20 আগস্ট) সিডনিতে 2023 ফিফা মহিলা বিশ্বকাপ 2023 ফাইনালে ইংল্যান্ডকে 1-0 গোলে হারিয়ে স্পেন তাদের প্রথম মহিলা বিশ্বকাপটি  নিশ্চিত করেছে। জেনিফার হারমোসোর একটি পেনাল্টি মেরি ইয়ারপস সেভ করেছিলেন, কিন্তু ওলগা কারমোনার প্রথমার্ধের একটি গোলই ইতিহাসে প্রথমবারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য লা রোজার পক্ষে যথেষ্ট ছিল।

FIFA Women's World Cup 2023

৯০ মিনিটের ফুটবলে যে কোনও মুহূর্তে বদলে যেতে পারে ম্যাচের পরিস্থিতি। পরিসংখ্যান এখানে নেহাতই গৌণ মাত্র। সে কথাই আরও একবার প্রমাণ করে দিল স্পেন। র‍্যাঙ্কিং এবং ধারেভারে ইংল্যান্ডের থেকে অনেকখানি পিছিয়ে থেকেও জয় ছিনিয়ে নিল তারা।

সৌজন্যে অধিনায়ক ওলগা কার্মানো। তাঁর একমাত্র গোলেই বিশ্বজয়ের নয়া ইতিহাস রচনা করল স্পেন। তবে আরও বড় ব্যবধান জিততেই পারত তারা। যদি না দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে গোল হাতছাড়া করতেন জেনিফার হারমোসো।

রবিবারের ফিফা মহিলা বিশ্বকাপ 2023 মেগা ফাইনালের শুরুটা একেবারে অসাধারণ ভাবেআরম্ভ করেছিল ইংল্যান্ড। প্রথম ১৫ মিনিট মাঝমাঠের দখল নিয়েছিলেন সেরিনা উইগম্যানের মেয়েরা। স্পেনের ডিফেন্সকে রীতিমতো চাপে ফেলে দিয়েছিলেন তাঁরা। ১৫ মিনিটের মাথায় গোলের সুযোগ এলেও বল বারে লেগে বেরিয়ে যায়। এরপর ধীরে ধীরে খেলা নিজেদের দখলে নিতে শুরু করে স্পেন। চোখে পড়ে তিকি-তাকা ফুটবল। ১৮ মিনিটেই আসে গোলের সুযোগ। তবে তা মিস করেন সালমা পারালুয়েলো। অবশেষে ২৯ মিনিটে ওলগা কারমোনার এই গোল স্পেন বিশ্বজয়ের নয়া ইতিহাস রচনা করল।